Delicious Bengali Khichuri Recipe || বাঙালি স্টাইলে ভোগের খিচুড়ি রেসিপি ||

bengali khichuri recipe

Bengali Khichuri Recipe: নমস্কার বন্ধুরা! আশাকরি ভালো আছেন। আজ আপনাদের জন্য এক দুর্দান্ত রেসিপি নিয়ে হাজির হয়েছি। আজ আমরা খিচুড়ি রেসিপি শেয়ার করবো। বাঙালিদের নিরামিষ খাবার গুলির মধ্যে খুবই জনপ্রিয় হলো খিচুড়ি (bengali style khichdi)। এই খিচুড়ি অনেক ভাবেই রান্না করা যায়। তবে আজ আমরা বাঙালি স্টাইলে নিরামিষ খিচুড়ি বা ভোগের খিচুড়ির রেসিপি (bengali khichuri recipe) নিয়ে কথা বলবো। খুব সহজে কীভাবে ভোগের খিচুড়ি প্রস্তুত করা যায় (easy bengali khichuri recipe), জেনে নিন আজকের প্রতিবেদন থেকে। 

Read More: Arsalan hatibagan menu price list 2023

Table of Contents

ভোগের খিচুড়ি বানানোর প্রয়োজনীয় উপকরণ (Bengali Khichuri recipe ingredients)

● গোবিন্দ ভোগ চাল- ২০০ গ্রাম।

● মুগ ডাল- ২০০ গ্রাম।

● আদা- ৫০ গ্রাম।

● কাঁচালঙ্কা- ৮টি।

● টমেটো- ৫টি।

● আলু- ৪০০ গ্রাম।

● কাজু ও কিসমিস- ১৫ গ্রাম।

● জিরে- ১ চা চামচ।

● রাঁধুনী- ১ চা চামচ।

● সরিষার তেল- ৬০ মিলি।

● হলুদ গুঁড়ো- ১.৫ চা চামচ।

● কাশ্মীরি লঙ্কা গুঁড়ো- ১/২ চা চামচ।

● ধনে গুঁড়ো- ১ চা চামচ।

● শুকনো লঙ্কা- ৫টি।

● তেজ পাতা- ৪টি।

● চিনি- ১ চা চামচ।

● জল- প্রয়োজন অনুযায়ী।

● নুন- স্বাদ মতো।

● ঘি- ২ চা চামচ।

● গরম মসলা- ১ চা চামচ।

● ধনে পাতা কুঁচি- সামান্য।

Read More: ঝাল মুড়ি Recipe

সুস্বাদু ভোগের খিচুড়ি বানানোর প্রনালী (Authentic khichdi in bengali style)

স্টেপ ১ : মুগ ডাল ও চাল ধুয়ে নিতে হবে

ভোগের খিচুড়ি বানানোর (bengali khichuri recipe) জন্য শুরুতেই আমাদের মুগের ডাল ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। এর জন্য গ্যাস অন করে একটা প‍্যান গরম করে তাতে ২০০ গ্রাম মুগের ডাল দিয়েই ভেজে নিতে হবে। এ সময় গ্যাসের ফ্লেম একদম লো রাখবেন। নয়তো ডাল পুড়ে যেতে পারে। হালকা লাল লাল করে ডাল ভাজা হয়ে গেলে দেখবেন একটা সুন্দর গন্ধ ছাড়বে। বুঝবেন ডাল ভাজা হয়ে গেছে। তারপর গ্যাসের ফ্লেম অফ করে ভাজা ডাল একটি বাটিতে তুলে নিতে হবে। 

এরপর ভাজা ডালের মধ্যে জল দিয়ে ভালো করে ডাল ধুয়ে নিতে হবে। ২ থেকে ৩ বার জল পাল্টে পাল্টে ডাল ধুয়ে নেবেন। তারপর জল ছেঁকে ফেলে দিয়ে ডাল এমনই রেখে দেবেন। 

এবার ভোগের খিচুড়ি রান্নার (bengali khichuri recipe) খুবই গুরুত্বপূর্ণ উপকরণ গোবিন্দ ভোগ চাল ধুয়ে নিতে হবে। এর জন্য একটি পাত্রে ২০০ গ্রাম গোবিন্দ ভোগ চাল নিয়ে তাতে পরিমান মতো জল দিয়ে ৩ বার ধরে ধুয়ে নিতে হবে। চাল ধোয়া হয়ে গেলে জল ফেলে দিয়ে চাল এমনই রেখে দেবেন। 

স্টেপ ২ : একটা পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে

যেহেতু আজ আমরা ভোগের খিচুড়ি রান্নার রেসিপি (bengali khichuri recipe) বলছি, সুতরাং বুঝতেই পারছেন এটি একটি নিরামিষ পদ। আর এই রান্নায় পেঁয়াজ রসুন ব্যবহার হবে না। এখানে আমরা আদা ও কাঁচালঙ্কা দিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নেব। এভাবে পেস্ট বানিয়ে খিচুড়ি রান্না করলে, খিচুড়ির (khichuri) স্বাদ দ্বিগুন হয়ে যায়। এই পেস্ট বানানোর জন্য একটি মিক্সিতে স্লাইস করে কেটে নেওয়া ৫০ গ্রাম আদা, ৮টি কাঁচালঙ্কা দিয়ে দিতে হবে।

একই সাথে মিক্সিতে দিয়ে দিতে হবে ১ চা চামচ গোটা জিরে ও ১ চা চামচ রাঁধুনী। এবার মিক্সিতে সামান্য জল দিয়ে ভালো করে একটি পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। এই জায়গায় বলে রাখি, খিচুড়ির (bengali khichdi) স্বাদ বাড়াতে অবশ্যই রাঁধুনীর ব্যবহার করবেন। তবে যদি বাড়িতে রাঁধুনী না থাকে তাহলে এই মসলাটি স্কিপ করতে পারেন। পেস্ট বানানো হয়ে গেলে একটি পাত্রে ঢেলে রেখে দেবেন।

Read More: Seasonal tastes new town menu

স্টেপ ৩: টমেটো পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে

ভোগের খিচুড়ি বানানোর (bengali khichuri recipe) জন্য এবার একটি টমেটো পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। এর জন্য আমরা নিয়ে নেব ৫ টি মিডিয়াম সাইজের টমেটো। টমেটো গুলি এবার চুরি দিয়ে টুকরো টুকরো করে কেটে নিতে হবে। তারপর টমেটোগুলি মিক্সিতে নিয়ে ভালো করে পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। যদি আপনারা টমেটো পেস্ট ব্যবহার করতে না চান, তাহলে টমেটো কুঁচিও ব্যবহার করতে পারেন। 

স্টেপ ৪: আলু ও কাজু ভেজে নেওয়া

খিচুড়ি রান্নার (bengali khichuri recipe) জন্য অনেকেই আলু ব্যবহার করে থাকেন। খিচুড়িতে আলু ব্যবহার করলে খেতেও যেমন ভালো লাগে, তেমনই রান্নার স্বাদ অনেকটা বেড়ে যায়। আমরা এখানে ৪০০ গ্রাম আলু ব্যবহার করবো। প্রথমেই আলু নিয়ে ভালো করে খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে। তারপর একটি আলুকে চার ফালি করে কেটে নিতে হবে। আলু কাটা হয়ে গেলে জল দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। তারপর আলুর মধ্যে সামান্য নুন ও হলুদ মাখিয়ে রাখতে হবে।

এবার গ্যাস অন করে একটি কড়া বসিয়ে গরম করে নিতে হবে। কড়া গরম হলে তাতে ৬০ মিলি সরিষার তেল দিয়ে দিতে হবে। তেল গরম হয়ে গেলে তার মধ্যে কেটে রাখা আলুগুলি দিয়ে ভালো করে ভেজে নিতে হবে। গ্যাসের ফ্লেম মিডিয়ামে রেখে আলু রাঙা রাঙা করে ভেজে নিয়ে তুলে নিতে হবে। 

কড়াইয়ে থাকা তেলের মধ্যেই এবার দিয়ে দিতে হবে ১৫ গ্রাম কাজু ও কিসমিস। তারপর হালকা নেড়ে ভেজে নিতে হবে। ভাজা হয়ে গেলে তুলে নিতে হবে একটি পাত্রে।

Read More: Dilkusha cabin history

স্টেপ ৫: গ্রেভি বানিয়ে নিতে হবে

এবার ভোগের খিচুড়ি বানানোর (bengali khichdi recipe) জন্য একটা গ্রেভি প্রস্তুত করে নিতে হবে। এর জন্য কড়াইয়ে থাকা অবশিষ্ট তেলের মধ্যেই রান্না করতে হবে। এবার গরম তেলে দিয়ে দিতে হবে ৫টি গোটা শুকনো লঙ্কা ও ৪টি তেজপাতা। এবার এগুলি ততক্ষণ ধরে ভাজুন যতক্ষণ না গন্ধ বের হচ্ছে।

শুকনো লঙ্কা একটু রাঙা হয়ে গেলে তেলের মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো। হলুদ একবার নেড়ে নিয়েই তেলের মধ্যে দিয়ে দিতে হবে আগে থেকে বানিয়ে রাখা আদা ও কাঁচালঙ্কার পেস্ট। এবার ৩ থেকে ৪ মিনিট ধরে মিডিয়াম ফ্লেমে ভালো করে রান্না করে নিন। আদার কাঁচা গন্ধ দূর হলে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ১/২ চা চামচ কাশ্মীরি লঙ্কা গুঁড়ো ও ১ চা চামচ ধনে গুঁড়ো। ২ মিনিট ভালো করে মশলা কষিয়ে নিন।

এবার মসলার মধ্যে দিয়ে দিতে হবে আগে থেকে পেস্ট করে রাখা টমেটো। তারপর ১০ থেকে ১২ মিনিট ধরে মিডিয়াম ফ্লেমে ভালো করে রান্না করে নিতে হবে, যতক্ষণ না টমেটোর কাঁচা গন্ধ দূর হয়ে যায়। এ সময়ই দিয়ে দিতে হবে স্বাদ মতো নুন ও ১ চা চামচ চিনি। মসলা থেকে হালকা তেল বুঝবেন গ্রেভি প্রস্তুত। এবার কড়াই নামিয়ে নিয়ে গ্যাস বসিয়ে দিয়ে হবে হাঁড়ি।

স্টেপ ৬: খিচুড়ি ( Bengali Khichuri Recipe ) প্রস্তুতি

গ্যাসে বসানো হাড়ির মধ্যে দিয়ে দিতে হবে পরিমান মতো জল। এই জায়গায় বলে রাখি, খিচুড়িতে যে পরিমান জল ব্যবহার করবেন তা এ সময় এক বারেই দিয়ে দিতে হবে। এই জায়গায় আমরা ২ লিটার জল ব্যবহার করছি। হাড়ির মধ্যে জল দিয়ে ভালো করে গরম করে নিতে হবে। জল গরম হয়ে গেলে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ১/২ চা চামচ হলুদ।

হলুদ একবার মিশিয়ে নিয়ে এর মধ্যে দিতে হবে মুগ ডাল। তারপর হাই ফ্লেমে ভালো করে ডাল সেদ্ধ হতে দিন। ডাল সেদ্ধ হয়ে গেলে এর মধ্যে দিয়ে দিন গোবিন্দ ভোগ চাল। তারপর ভালো করে চাল ও ডাল নেড়ে নিয়ে ঢাকনা দিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট ধরে রান্না করে নিতে হবে। ২০ মিনিট পর ঢাকনা খুলে দেখবেন চাল ৮০ শতাংশ সেদ্ধ হয়ে গেছে।

এবার হাড়ির মধ্যে দিয়ে দিতে হবে আগে থেকে বানিয়ে রাখা গ্রেভি ও ভেজে রাখা আলু। তারপর ভালো করে খিচুড়ির সঙ্গে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর খিচুড়ির মধ্যে দিয়ে দিয়ে হবে স্বাদ মতো নুন। তারপর ভালো করে নেড়ে নেড়ে ৫ থেকে ৮ মিনিট রান্না করলেই হয়ে যাবে। একদম শেষে গ্যাসের ফ্লেম অফ করে দিয়ে এর মধ্যে ১ চা চামচ ঘি, ১ চা চামচ গরম মসলা ও আগে থেকে ভেজে রাখা কাজু-কিসমিস দিয়ে মিশিয়ে নিলেই তৈরি হয়ে যাবে সুস্বাদু ভোগের খিচুড়ি (bhog khichuri recipe)। 

ব্যাস, এভাবে খুব সহজেই বাড়িতে বানিয়ে ফেলা যায় ভোগের খিচুড়ি (Simple khichdi in bengali style)। আপনি চাইলে খিচুড়ির উপর সামান্য ধনেপাতা কুঁচি ছড়িয়ে দিতে পারেন। এতে স্বাদ আরো বেড়ে যায়। পুজো, অনুষ্ঠান কিংবা এমনি যে কোনো সময়ে এই নিরামিষ খিচুড়ি (bengali khichuri bong mom) আলু ভাজা, বেগুন ভাজা, লাবড়া তরকারি কিংবা গরম গরম আলুর দমের সঙ্গে খেতে দারুণ লাগে। আজকের রেসিপি আপনাদের কেমন লাগলো তা অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আমাদের পরবর্তী রেসিপি জানার জন্য আমাদের সঙ্গে জুড়ে থাকুন।

Read More: Dada boudi biryani barrackpore menu

ভোগের খিচুড়ি ( Bengali Khichuri Recipe )রেসিপির গুরুত্বপূর্ণ টিপস: 

● মনে রাখবেন ডাল ভাজার সময় কোনো প্রকার তেল বা ঘি ব্যবহার করবেন না, শুকনো খোলাতেই ডাল ভেজে নেবেন।

● মুগের ডাল ভাজার পর আপনারা চাইলে জল দিয়ে ভিজিয়ে রাখতে পারেন। তাহলে ডাল সিদ্ধ হতে সময় কম লাগবে এবং খিচুড়ি তাড়াতাড়ি রান্না হয়ে যাবে।

● টমেটো যোগে গ্রেভি রান্নার সময় চিনি ব্যবহার করলে, টমেটোর টক ভাব ব্যালেন্স হয় এবং স্বাদ ভালো পাওয়া যায়। 

FAQ on Bengali Khichuri Recipe

How to make khichdi in a cooker?

উত্তরঃ প্রেসার কুকারে মধ্যে বিভিন্ন মশলা যোগে একটি গ্রেভি বানিয়ে নিয়ে, তার মধ্যে ধুয়ে রাখা চাল ও ডাল দিয়ে দিতে হবে। এরপর ভালো করে চাল ডাল ভেজে নিতে হবে। ভালো ভাবে ভাজা হয়ে গেলে এর মধ্যে পরিমান মতো জল দিয়ে প্রেসার কুকারে ঢাকনা বন্ধ করে দিয়ে হাই ফ্লেমে রান্না করে নিতে হবে (bengali khichuri in pressure cooker)।

How to make Khichdi?

উত্তরঃ হাড়ির মধ্যে জল দিয়ে মুগ ডাল ও চাল সেদ্ধ করে নিতে হবে। তার মধ্যে আদা, কাঁচালঙ্কা, টমেটো দিয়ে বানানো গ্রেভি দিয়ে ভালো করে নেড়ে ফুটিয়ে নিয়লেই প্রস্তুত হয়ে যাবে খিচুড়ি (bengali khichuri)।

How many whistles in khichdi?

উত্তরঃ প্রেসার কুকারে খিচুড়ি বানানোর জন্য এক থেকে দুটো সিটি দিতে হবে। এর বেশি দিলে খিচুড়িতে চাল ও ডাল একদমই গলে যাবে।

What is the origin of the word khichdi?

উত্তরঃ বাংলায় খিচুড়ি বা হিন্দি শব্দ ‘khichdi’ শব্দটি এসেছে সংস্কৃত শব্দ ‘khiccha’ থেকে।

How many calories are there in Bengali khichuri?

উত্তরঃ ২৫০ গ্রাম খিচুড়ির মধ্যে ৩২০ ক্যালোরি পাওয়া যায়।

Khichuri

Bengali Khichuri Recipe also called Niramish Bhoger Khichuri is a combination of lentil medley and rice and is delicious to eat.
Prep Time 15 minutes
Cook Time 25 minutes
Total Time 40 minutes
Course Dinner, Main Course
Cuisine Bengali, Indian
Servings 4 People
Calories 250 kcal

Ingredients
  

  • গোবিন্দ ভোগ চাল- ২০০ গ্রাম।
  • মুগ ডাল- ২০০ গ্রাম।
  • আদা- ৫০ গ্রাম।
  • কাঁচালঙ্কা- ৮টি।
  • টমেটো- ৫টি।
  • আলু- ৪০০ গ্রাম।
  • কাজু ও কিসমিস- ১৫ গ্রাম।
  • জিরে- ১ চা চামচ।
  • রাঁধুনী- ১ চা চামচ।
  • সরিষার তেল- ৬০ মিলি।
  • হলুদ গুঁড়ো- ১.৫ চা চামচ।
  • কাশ্মীরি লঙ্কা গুঁড়ো- ১/২ চা চামচ।
  • ধনে গুঁড়ো- ১ চা চামচ।
  • শুকনো লঙ্কা- ৫টি।
  • তেজ পাতা- ৪টি।
  • চিনি- ১ চা চামচ।
  • জল- প্রয়োজন অনুযায়ী।
  • নুন- স্বাদ মতো।
  • ঘি- ২ চা চামচ।
  • গরম মসলা- ১ চা চামচ।
  • ধনে পাতা কুঁচি- সামান্য।

Instructions
 

স্টেপ ১ : মুগ ডাল ও চাল ধুয়ে নিতে হবে

  • ভোগের খিচুড়ি বানানোর (bengali khichuri recipe) জন্য শুরুতেই আমাদের মুগের ডাল ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। এর জন্য গ্যাস অন করে একটা প‍্যান গরম করে তাতে ২০০ গ্রাম মুগের ডাল দিয়েই ভেজে নিতে হবে। এ সময় গ্যাসের ফ্লেম একদম লো রাখবেন। নয়তো ডাল পুড়ে যেতে পারে। হালকা লাল লাল করে ডাল ভাজা হয়ে গেলে দেখবেন একটা সুন্দর গন্ধ ছাড়বে। বুঝবেন ডাল ভাজা হয়ে গেছে। তারপর গ্যাসের ফ্লেম অফ করে ভাজা ডাল একটি বাটিতে তুলে নিতে হবে।
  • এরপর ভাজা ডালের মধ্যে জল দিয়ে ভালো করে ডাল ধুয়ে নিতে হবে। ২ থেকে ৩ বার জল পাল্টে পাল্টে ডাল ধুয়ে নেবেন। তারপর জল ছেঁকে ফেলে দিয়ে ডাল এমনই রেখে দেবেন।
  • এবার ভোগের খিচুড়ি রান্নার (bengali khichuri recipe) খুবই গুরুত্বপূর্ণ উপকরণ গোবিন্দ ভোগ চাল ধুয়ে নিতে হবে। এর জন্য একটি পাত্রে ২০০ গ্রাম গোবিন্দ ভোগ চাল নিয়ে তাতে পরিমান মতো জল দিয়ে ৩ বার ধরে ধুয়ে নিতে হবে। চাল ধোয়া হয়ে গেলে জল ফেলে দিয়ে চাল এমনই রেখে দেবেন।

স্টেপ ২ : একটা পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে

  • যেহেতু আজ আমরা ভোগের খিচুড়ি রান্নার রেসিপি (bengali khichuri recipe) বলছি, সুতরাং বুঝতেই পারছেন এটি একটি নিরামিষ পদ। আর এই রান্নায় পেঁয়াজ রসুন ব্যবহার হবে না। এখানে আমরা আদা ও কাঁচালঙ্কা দিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নেব। এভাবে পেস্ট বানিয়ে খিচুড়ি রান্না করলে, খিচুড়ির (khichuri) স্বাদ দ্বিগুন হয়ে যায়। এই পেস্ট বানানোর জন্য একটি মিক্সিতে স্লাইস করে কেটে নেওয়া ৫০ গ্রাম আদা, ৮টি কাঁচালঙ্কা দিয়ে দিতে হবে।
  • একই সাথে মিক্সিতে দিয়ে দিতে হবে ১ চা চামচ গোটা জিরে ও ১ চা চামচ রাঁধুনী। এবার মিক্সিতে সামান্য জল দিয়ে ভালো করে একটি পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। এই জায়গায় বলে রাখি, খিচুড়ির (bengali khichdi) স্বাদ বাড়াতে অবশ্যই রাঁধুনীর ব্যবহার করবেন। তবে যদি বাড়িতে রাঁধুনী না থাকে তাহলে এই মসলাটি স্কিপ করতে পারেন। পেস্ট বানানো হয়ে গেলে একটি পাত্রে ঢেলে রেখে দেবেন।

স্টেপ ৩: টমেটো পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে

  • ভোগের খিচুড়ি বানানোর (bengali khichuri recipe) জন্য এবার একটি টমেটো পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। এর জন্য আমরা নিয়ে নেব ৫ টি মিডিয়াম সাইজের টমেটো। টমেটো গুলি এবার চুরি দিয়ে টুকরো টুকরো করে কেটে নিতে হবে। তারপর টমেটোগুলি মিক্সিতে নিয়ে ভালো করে পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। যদি আপনারা টমেটো পেস্ট ব্যবহার করতে না চান, তাহলে টমেটো কুঁচিও ব্যবহার করতে পারেন।

স্টেপ ৪: আলু ও কাজু ভেজে নেওয়া

  • খিচুড়ি রান্নার (bengali khichuri recipe) জন্য অনেকেই আলু ব্যবহার করে থাকেন। খিচুড়িতে আলু ব্যবহার করলে খেতেও যেমন ভালো লাগে, তেমনই রান্নার স্বাদ অনেকটা বেড়ে যায়। আমরা এখানে ৪০০ গ্রাম আলু ব্যবহার করবো। প্রথমেই আলু নিয়ে ভালো করে খোসা ছাড়িয়ে নিতে হবে। তারপর একটি আলুকে চার ফালি করে কেটে নিতে হবে। আলু কাটা হয়ে গেলে জল দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। তারপর আলুর মধ্যে সামান্য নুন ও হলুদ মাখিয়ে রাখতে হবে।
  • এবার গ্যাস অন করে একটি কড়া বসিয়ে গরম করে নিতে হবে। কড়া গরম হলে তাতে ৬০ মিলি সরিষার তেল দিয়ে দিতে হবে। তেল গরম হয়ে গেলে তার মধ্যে কেটে রাখা আলুগুলি দিয়ে ভালো করে ভেজে নিতে হবে। গ্যাসের ফ্লেম মিডিয়ামে রেখে আলু রাঙা রাঙা করে ভেজে নিয়ে তুলে নিতে হবে।
  • কড়াইয়ে থাকা তেলের মধ্যেই এবার দিয়ে দিতে হবে ১৫ গ্রাম কাজু ও কিসমিস। তারপর হালকা নেড়ে ভেজে নিতে হবে। ভাজা হয়ে গেলে তুলে নিতে হবে একটি পাত্রে।

স্টেপ ৫: গ্রেভি বানিয়ে নিতে হবে

  • এবার ভোগের খিচুড়ি বানানোর (bengali khichdi recipe) জন্য একটা গ্রেভি প্রস্তুত করে নিতে হবে। এর জন্য কড়াইয়ে থাকা অবশিষ্ট তেলের মধ্যেই রান্না করতে হবে। এবার গরম তেলে দিয়ে দিতে হবে ৫টি গোটা শুকনো লঙ্কা ও ৪টি তেজপাতা। এবার এগুলি ততক্ষণ ধরে ভাজুন যতক্ষণ না গন্ধ বের হচ্ছে।
  • শুকনো লঙ্কা একটু রাঙা হয়ে গেলে তেলের মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো। হলুদ একবার নেড়ে নিয়েই তেলের মধ্যে দিয়ে দিতে হবে আগে থেকে বানিয়ে রাখা আদা ও কাঁচালঙ্কার পেস্ট। এবার ৩ থেকে ৪ মিনিট ধরে মিডিয়াম ফ্লেমে ভালো করে রান্না করে নিন। আদার কাঁচা গন্ধ দূর হলে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ১/২ চা চামচ কাশ্মীরি লঙ্কা গুঁড়ো ও ১ চা চামচ ধনে গুঁড়ো। ২ মিনিট ভালো করে মশলা কষিয়ে নিন।
  • এবার মসলার মধ্যে দিয়ে দিতে হবে আগে থেকে পেস্ট করে রাখা টমেটো। তারপর ১০ থেকে ১২ মিনিট ধরে মিডিয়াম ফ্লেমে ভালো করে রান্না করে নিতে হবে, যতক্ষণ না টমেটোর কাঁচা গন্ধ দূর হয়ে যায়। এ সময়ই দিয়ে দিতে হবে স্বাদ মতো নুন ও ১ চা চামচ চিনি। মসলা থেকে হালকা তেল বুঝবেন গ্রেভি প্রস্তুত। এবার কড়াই নামিয়ে নিয়ে গ্যাস বসিয়ে দিয়ে হবে হাঁড়ি।

স্টেপ ৬: খিচুড়ি প্রস্তুতি (Khichuri in bengali)

  • গ্যাসে বসানো হাড়ির মধ্যে দিয়ে দিতে হবে পরিমান মতো জল। এই জায়গায় বলে রাখি, খিচুড়িতে যে পরিমান জল ব্যবহার করবেন তা এ সময় এক বারেই দিয়ে দিতে হবে। এই জায়গায় আমরা ২ লিটার জল ব্যবহার করছি। হাড়ির মধ্যে জল দিয়ে ভালো করে গরম করে নিতে হবে। জল গরম হয়ে গেলে এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে ১/২ চা চামচ হলুদ।
  • হলুদ একবার মিশিয়ে নিয়ে এর মধ্যে দিতে হবে মুগ ডাল। তারপর হাই ফ্লেমে ভালো করে ডাল সেদ্ধ হতে দিন। ডাল সেদ্ধ হয়ে গেলে এর মধ্যে দিয়ে দিন গোবিন্দ ভোগ চাল। তারপর ভালো করে চাল ও ডাল নেড়ে নিয়ে ঢাকনা দিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট ধরে রান্না করে নিতে হবে। ২০ মিনিট পর ঢাকনা খুলে দেখবেন চাল ৮০ শতাংশ সেদ্ধ হয়ে গেছে।
  • এবার হাড়ির মধ্যে দিয়ে দিতে হবে আগে থেকে বানিয়ে রাখা গ্রেভি ও ভেজে রাখা আলু। তারপর ভালো করে খিচুড়ির সঙ্গে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর খিচুড়ির মধ্যে দিয়ে দিয়ে হবে স্বাদ মতো নুন। তারপর ভালো করে নেড়ে নেড়ে ৫ থেকে ৮ মিনিট রান্না করলেই হয়ে যাবে। একদম শেষে গ্যাসের ফ্লেম অফ করে দিয়ে এর মধ্যে ১ চা চামচ ঘি, ১ চা চামচ গরম মসলা ও আগে থেকে ভেজে রাখা কাজু-কিসমিস দিয়ে মিশিয়ে নিলেই তৈরি হয়ে যাবে সুস্বাদু ভোগের খিচুড়ি (bhog khichuri recipe)।
  • ব্যাস, এভাবে খুব সহজেই বাড়িতে বানিয়ে ফেলা যায় ভোগের খিচুড়ি (Simple khichdi in bengali style)। আপনি চাইলে খিচুড়ির উপর সামান্য ধনেপাতা কুঁচি ছড়িয়ে দিতে পারেন। এতে স্বাদ আরো বেড়ে যায়। পুজো, অনুষ্ঠান কিংবা এমনি যে কোনো সময়ে এই নিরামিষ খিচুড়ি (bengali khichuri bong mom) আলু ভাজা, বেগুন ভাজা, লাবড়া তরকারি কিংবা গরম গরম আলুর দমের সঙ্গে খেতে দারুণ লাগে। আজকের রেসিপি আপনাদের কেমন লাগলো তা অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন। আমাদের পরবর্তী রেসিপি জানার জন্য আমাদের সঙ্গে জুড়ে থাকুন।

Notes

● মনে রাখবেন ডাল ভাজার সময় কোনো প্রকার তেল বা ঘি ব্যবহার করবেন না, শুকনো খোলাতেই ডাল ভেজে নেবেন।
● মুগের ডাল ভাজার পর আপনারা চাইলে জল দিয়ে ভিজিয়ে রাখতে পারেন। তাহলে ডাল সিদ্ধ হতে সময় কম লাগবে এবং খিচুড়ি তাড়াতাড়ি রান্না হয়ে যাবে।
● টমেটো যোগে গ্রেভি রান্নার সময় চিনি ব্যবহার করলে, টমেটোর টক ভাব ব্যালেন্স হয় এবং স্বাদ ভালো পাওয়া যায়।
Keyword Bengali Khichuri

Leave a comment

Recipe Rating




Open chat
1
Scan the code
Welcome to FoodiePrice
Hello 👋
Can we help you?