Shukto Recipe in Bengali | আপনার বাড়িতে শুকতো তৈরি করুন | শুক্তোর রেসিপ

shukto recipe in bengali

Shukto Recipe in Bengali: বাঙালি মানেই ভোজন রসিক। কথায় আছে খাঁটি বাঙালির আসল পরিচয় লুকিয়ে রয়েছে তার খাবার মেনুতে। কাঁটা তারে দুই বাংলা ভাগ হলেও, এখনো খাবারের দিক থেকে দুই বাংলার মধ্যেই বেশ মিল রয়েছে। যেগুলো একেবারে বাঙালির ঐতিহ্যবাহী খাবার। বহু যুগ আগে থেকেই যে খাবার গুলো বাঙালিরা তৃপ্তির সঙ্গে খেয়ে আসছেন। আজ এমনই এক ঐতিহ্যবাহী নিরামিষ বাঙালি খাবারের রেসিপি আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করে নেব।

আজ বাঙালীদের সবচেয়ে জনপ্রিয় পদ শুক্তোর রেসিপ (Shukto Recipe) আপনাদের জানাবো। তার আগে জেনে নিন শুক্তো সম্পর্কে। দুপুরে গরম গরম ভাতের সঙ্গে শুক্তো খেতে পছন্দ করেন না এমন বাঙালির সংখ্যা কম। এখন তো বিয়ে বাড়ি থেকে শুরু করে অন্নপ্রাসন বাড়িতেও এই পদ রান্না করা হয়।  অনেকেই বাঙালি স্টাইলে শুক্তো রেসিপি (Shukto Recipe In Bengali Style) জানতে চান। আজকের প্রতিবেদনটি তাদের জন্য। এই প্রতিবেদন থেকে বাঙালি স্টাইলে শুক্তোর রেসিপি ( Shukto Ranna Recipe In Bengali Style) শিখে নিয়ে ঝট পট বানিয়ে ফেলুন বাড়িতে।

Also Read: বিস্তারিতভাবে Jhal Muri Recipe জেনে নিন

শুক্তোর অজানা কাহিনী

শুক্তোর রেসিপি (Shukto Recipe) জানার আগে জেনে নিন শুক্তো সম্পর্কে কিছু অজানা তথ্য। ইতিহাস ঘাটলে দেখা যাবে, ‘মঙ্গলকাব্য’ ও বিভিন্ন বৈষ্ণব সাহিত্যে একাধিকবার শুক্তোর উল্লেখ রয়েছে। মঙ্গলকাব্যের অন্যতম প্রধান সাহিত্য ‘মনসামঙ্গলকাব্যে’ বেহুলার বিয়ের খাদ্য তালিকায় উল্লেখ ছিল শুক্তোর। অন্যদিকে ভরতচন্দ্র রায়গুনাকারের লেখা ‘অন্নদামঙ্গল’ কাব্যেও ২২ রকমের যে নিরামিষ পদের উল্লেখ রয়েছে, শুক্তো তার মধ্যে একটি। কথিত আছে, পর্তুগিজরা ভারতে আলু চাষ শুরু করার পর থেকে শুক্তোর প্রধান উপাদান হয়ে ওঠে আলু।

এও বলা হয়, বাঙালির এই প্রিয় খাবারের উৎপত্তি ঘটে কেরলে। কেরলের হাত ধরেই সারা ভারতের ছড়িয়ে পড়ে শুক্তোর রেসিপি। সে সময় পর্তুগিজদের খাবার ছিল এটি। যদিও তখন এর নাম ছিল শুকতা বা সুকতা। ‘চৈতন্য চরিতামৃত’ গ্রন্থে এক প্রকার তেতো শুকনো পাতাকে শুকতা হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে।  আবার সে সময় শুকনো শাকের রান্নাকেও শুকতা বলা হতো। শুক্তোর স্বাদ তিত হওয়ার কারণে আগেকার দিনে একে ‘তিত’ ও বলা হতো। আগেকার দিনে শুক্তো রান্নার ধরণ আলাদা ছিল।

কালের পরিবর্তনে রেসিপির ধরণও বদলেছে। আর আজ তাই নিয়ে এলাম ঐতিহ্যবাহী নিরামিষ পদ শুক্তো। নিন্মে বাঙালি স্টাইলে শুক্তোর রেসিপি (Shukto Ranna Recipe In Bengali Style) নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো। 

Also Read: Kashmiri Aloo Dum Recipe পড়ুন।

বাঙালি স্টাইলে শুক্তো বানানোর উপকরণ (Shukto Recipe Ingredients)

নিরামিষ শুক্তো বানানোর জন্য যে সব উপকরণ (Shukto Recipe Ingredients) লাগছে তা নিম্নে উল্লেখ করা হলো-

● সজনে ডাটা- ১৬০ গ্রাম

● রাঙা/মিষ্টি আলু- ১২০ গ্রাম

● শিম- ১০০ গ্রাম

● বেগুন- ১০০ গ্রাম

● করলা- ৫০ গ্রাম

আলু– ১০০ গ্রাম

● কাঁচাকলা- ১৫০ গ্রাম

● কাঁচা পেপে- ১৫০ গ্রাম

● মুসুর ডালের বরি- ১০ পিস

সরিষার তেল– ৬০ গ্রাম

● তেজপাতা- ৪ পিস

● পাঁচফোড়ন- ১/২ চা চামচ

● আদা বাটা- ৩৫ গ্রাম

● সরিষা বাটা- ২৫ গ্রাম

● নারকেল কুড়ো- ১৫ গ্রাম

● দুধ- ১০০ গ্রাম

● ময়দা- ১/৪ চা চামচ

● গরম মশলা- ২০ গ্রাম

চিনি– ২০ গ্রাম

● রাধুনি গুঁড়ো- ১/২ চা চামচ

ঘি– ১০ গ্রাম

● জল- ১ কাপ

● নুন- স্বাদ অনুসারে

বাঙালি স্টাইলে শুক্তো কিভাবে বানাবেন, ধাপে ধাপে দেখে নিন (Step By Step Bengali Style Shukto Recipe)

ধাপ ১

বাঙালি স্টাইলে শুক্তো বানানোর  (Shukto Recipe In Bengali Style) জন্য প্রথমেই আলু এবং রাঙা আলু বা মিষ্টি আলুগুলি ভালো করে কেটে নিতে হবে। খেয়াল রাখবেন দুই রকমের কাটা আলুর সাইজ যেন ২ সেন্টিমিটার করে থাকে। এরপর  কাঁচাকলা, পেপে এবং বেগুন একটু বড় বড় করে কেটে নিন। তারপর শিম কাটার পালা।

শিম কাটার জন্য প্রথমে শিমের দুই ধার হালকা করে ছাঁটাই করতে হবে এবং তারপর ছুরি দিয়ে তা দু ফালি করে নিতে হবে। শিম কাটার পর সজনে ডাটার আঁশ ভালো করে ছাড়িয়ে নিন এবং সেগুলি ৫ সেন্টিমিটার লম্বা লম্বা করে কেটে নিন। এরপর করলা বা উচ্ছে কেটে নিন। সব সবজি কাটা হয়ে গেলে সেগুলি জল দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিয়ে একটি আলাদা পাত্রে রেখে দিন।

Also Read: চিকেন রেজালা রেসিপি 

ধাপ ২

শুক্তো বানানোর জন্য (Shukto Recipe) দ্বিতীয় ধাপে কেটে রাখা সবজিগুলিকে সেদ্ধ ও ভেজে নিতে হবে। প্রথমে সবজিগুলি সেদ্ধ করে নিন। এরজন্য ওভেন অন করে একটা কড়াই বসান। তাতে পরিমান মতো জল ও অল্প পরিমাণ নুন দিন। এই সময় নুন দিলে সবজি সেদ্ধ হওয়ার সময় সবজির মধ্যে নুন প্রবেশ করে, ফলে রান্নার স্বাদও বেড়ে যায়। জল একটু ফুটে এলে তাতে আগে থেকে কেটে রাখা

আলু, সজনে ডাটা, পেপে, শিম এবং মিষ্টি আলু  দিয়ে দিন। তারপর কড়াই ঢাকনা দিয়ে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। বলে রাখি, এর মাঝে মাঝে ঢাকনা খুলে সবজি একটু নেড়ে দেবেন, তাতে সবজিগুলো সেদ্ধ ভালো হবে। ১৫ মিনিট হয়ে গেলে ঢাকনা খুলে সবজিগুলি ছেঁকে নিন এবং একটি পাত্রে রেখে দিন। সবজি থেকে ছেঁকে নেওয়া জলটা একটি পাত্রে রেখে দিন। এই জল শুক্তো বানানোর (Shukto Recipe) কাজে ব্যাবহার করলে শুক্তোর স্বাদ দ্বিগুন হয়ে যায়।

ধাপ ৩

এবার শুক্তো বানানোর (Shukto Recipe) পরবর্তী ধাপে যাওয়া যাক। এর জন্য কড়াইতে পরিমান মতো সরিষার তেল দিয়ে গরম করে নিন। এতে ডালের বরি দিয়ে লাল লাল করে ভেজে নিন। ভাজা হয়ে গেলে সেগুলি একটি বাটিতে তুলে রাখুন। এবার কড়ার গরম তেলে করলা, কাঁচকলা ও বেগুন পর পর ভেজে নিন। প্রত্যেকটি সবজিই গোল্ডেন ফ্রাই করতে হবে। ভাজা হিয়ে গেলে একটি পাত্রে তুলে রাখুন।

ধাপ ৪

এরপর শুক্তো বানানোর (Shukto Recipe) আসল ধাপে প্রবেশ করলাম। এবার কড়াইতে একটু তেল দিয়ে দিন। যদি সবজি ভাজা তেল থেকে যায় তাহলে আলাদা ভাবে তেল দেওয়ার প্রয়োজন নেই। এবার গরম তেলে তেজপাতা ও পাঁচফোড়ন যোগ করুন। তেল থেকে পাঁচফোড়নের হালকা গন্ধ বের হলে তাতে আগে থেকে বেটে রাখা আদা দিয়ে আরো এক মিনিট ভেজে নিন।

এরপর কড়াইতে সরিষা বাটা দিয়ে ভেজে নিন। বলে রাখি, যদি এই মুহূর্তে মশালা কড়াইতে লেগে যায় তাহলে একটু জল দিতে পারেন। কিংবা ওই সেদ্ধ সবজি থেকে ছেঁকে রাখা জলও এই জায়গায় ব্যাবহার করতে পারেন। এরপর যতক্ষন না মশলা থেকে তেল ছাড়ছে ততক্ষণ ভালো করে নাড়তে থাকুন।

Also Read: Chicken soup recipe in details.

ধাপ ৫

এরপর কড়াইতে আগে থেকে সেদ্ধ করে রাখা আলু যোগ করুন এবং ৩ মিনিট লো ফ্লেমে রান্না করে নিন।তারপর  ভাজা কাঁচাকলা, বরি সহ বাকি সেদ্ধ সবজি কড়াইতে দিয়ে দিন। তারপর এতে স্বাদ অনুসারে লবন ও অল্প চিনি ছড়িয়ে দিন। সব কিছু ভালো করে মিশিয়ে নিন।

এরপর কড়াইয়ের মধ্যে নারকেল কুড়ো মিশিয়ে দিয়ে, হালকা করে নেড়ে দিন। এরপর ছেঁকে রাখা অবশিষ্ট জল দিয়ে দিন। এরপর কড়াইতে আগে থেকে ভেজে রাখা বেগুন ও করলা দিয়ে দিন এবং সব সবজি আরো একবার হালকা করে মিশিয়ে নিন।

ধাপ ৬

শুক্তো রান্নার শেষ ধাপে চলে এসেছি। যেখানে কড়াইয়ে দুধ ও অল্প ময়দা দিয়ে বানানো একটি মিশ্রণ মিশিয়ে দিতে হবে। এরপর গ্যাসের ফ্লেমে লো করে সবজি সেদ্ধ না হয়ে আসা পর্যন্ত রান্না করে যেতে হবে। সবজি সেদ্ধ হয়ে গেলে, তাতে রাঁধুনি হালকা গুঁড়িয়ে ছড়িয়ে দিতে হবে।

এরপর গ্যাস বন্ধ করে দিয়ে কড়াইতে ঘি ছড়িয়ে দিন এবং একটা থালা দিয়ে ঢেকে রাখুন কিছুক্ষন। এভাবেই প্রস্তুত হয়ে গেল বাঙালি স্টাইলে শুক্তো রান্না (Shukto Recipe In Bengali Style) ১০ মিনিট পর ঢাকনা খুলে সরু চালের ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন গরম গরম শুক্তো।

কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস

১) মনে রখাবেন, বেগুনকে খুব কড়া ভাজার দরকার নেই। নয়তো বেগুন গলে যেতে পারে।

২) ঢেকে  রান্না করার সময় খেয়াল রাখতে হবে যাতে রান্না কড়াইতে লেগে না যায়। এর জন্য মাঝে মধ্যে ঢাকনা খুলে সবজি ও মশলা নেড়ে নেবেন।

৩) আপনি চাইলে সবজি সেদ্ধ করার সময় জলে হলুদও দিতে পারেন, এখানে হলুদ ছাড়াই রান্নার রেসিপি দেখানো হয়েছে।

৪) আপনি পুরো গ্রেভি দুধ দিয়েই করতে পারেন। আমরা এখানে ময়দা ব্যাবহার করেছি। শুধু  দুধ ব্যাবহার করলে গ্রেভি অনেকটা ঘন হয়ে যায়।

৫) শুক্তো এমনিতে মিষ্টি খেতে লাগে। তাই চিনি দেওয়ার সময় বুঝে চিনি দেবেন। যাতে অতিরিক্ত মিষ্টি না হয়ে যায়। তাতে আসল শুক্তোর স্বাদ আর পাওয়া যায় না।

shukto recipe

Shukto Recipe in Bengali

বাঙালি স্টাইলে শুক্তোর রেসিপি ( Shukto Recipe InBengali Style)
Prep Time 15 minutes
Cook Time 30 minutes
Total Time 45 minutes
Course Main Course
Cuisine Bengali
Servings 4 People

Ingredients
  

  • ১৬০ গ্রাম সজনে ডাটা
  • ১২০ গ্রাম রাঙা/মিষ্টি আলু
  • ১০০ গ্রাম শিম
  • ১০০ গ্রাম বেগুন
  • ১০০ গ্রাম করলা
  • ১৫০ গ্রাম কাঁচাকলা
  • ১৫০ গ্রাম কাঁচা পেপে
  • ১০ পিস মুসুর ডালের বরি
  • ৬০ গ্রাম সরিষার তেল
  • পিস তেজপাতা
  • ১/২ চা চামচ পাঁচফোড়ন
  • ৩৫ গ্রাম আদা বাটা
  • ২৫ গ্রাম সরিষা বাটা
  • ১৫ গ্রাম নারকেল কুড়ো
  • ১০০ গ্রাম দুধ
  • ১/৪ চা চামচ ময়দা
  • ২০ গ্রাম গরম মশলা
  • ২০ গ্রাম চিনি
  • ১/২ চা চামচ রাধুনি গুঁড়ো
  • ১০ গ্রাম ঘি
  • কাপ জল
  • স্বাদঅনুসারে নুন

Instructions
 

  • ধাপ ১
     
    বাঙালি স্টাইলেশুক্তো বানানোর  (Shukto Recipe In BengaliStyle) জন্য প্রথমেই আলু এবং রাঙা আলু বা মিষ্টি আলুগুলি ভালো করে কেটে নিতে হবে। খেয়াল রাখবেনদুই রকমের কাটা আলুর সাইজ যেন ২ সেন্টিমিটার করে থাকে। এরপর  কাঁচাকলা, পেপে এবং বেগুন একটু বড় বড় করে কেটে নিন।তারপর শিম কাটার পালা।
    শিম কাটার জন্য প্রথমে শিমের দুই ধার হালকা করে ছাঁটাই করতেহবে এবং তারপর ছুরি দিয়ে তা দু ফালি করে নিতে হবে। শিম কাটার পর সজনে ডাটার আঁশ ভালোকরে ছাড়িয়ে নিন এবং সেগুলি ৫ সেন্টিমিটার লম্বা লম্বা করে কেটে নিন। এরপর করলা বা উচ্ছেকেটে নিন। সব সবজি কাটা হয়ে গেলে সেগুলি জল দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিয়ে একটি আলাদা পাত্রেরেখে দিন।
     
    ধাপ ২
     
    শুক্তো বানানোরজন্য (Shukto Recipe) দ্বিতীয় ধাপে কেটে রাখা সবজিগুলিকে সেদ্ধ ও ভেজে নিতে হবে। প্রথমে সবজিগুলি সেদ্ধ করেনিন। এরজন্য ওভেন অন করে একটা কড়াই বসান। তাতে পরিমান মতো জল ও অল্প পরিমাণ নুন দিন।এই সময় নুন দিলে সবজি সেদ্ধ হওয়ার সময় সবজির মধ্যে নুন প্রবেশ করে, ফলে রান্নার স্বাদওবেড়ে যায়। জল একটু ফুটে এলে তাতে আগে থেকে কেটে রাখা
    আলু,সজনে ডাটা, পেপে, শিম এবং মিষ্টি আলু  দিয়েদিন। তারপর কড়াই ঢাকনা দিয়ে ১৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। বলে রাখি, এর মাঝে মাঝে ঢাকনা খুলেসবজি একটু নেড়ে দেবেন, তাতে সবজিগুলো সেদ্ধ ভালো হবে। ১৫ মিনিট হয়ে গেলে ঢাকনা খুলেসবজিগুলি ছেঁকে নিন এবং একটি পাত্রে রেখে দিন। সবজি থেকে ছেঁকে নেওয়া জলটা একটি পাত্রেরেখে দিন। এই জল শুক্তো বানানোর(Shukto Recipe) কাজে ব্যাবহার করলে শুক্তোর স্বাদ দ্বিগুন হয়ে যায়।
     
    ধাপ ৩
     
    এবার শুক্তোবানানোর (Shukto Recipe)পরবর্তী ধাপে যাওয়া যাক। এর জন্য কড়াইতে পরিমান মতো সরিষার তেল দিয়ে গরম করে নিন।এতে ডালের বরি দিয়ে লাল লাল করে ভেজে নিন। ভাজা হয়ে গেলে সেগুলি একটি বাটিতে তুলে রাখুন।এবার কড়ার গরম তেলে করলা, কাঁচকলা ও বেগুন পর পর ভেজে নিন। প্রত্যেকটি সবজিই গোল্ডেনফ্রাই করতে হবে। ভাজা হিয়ে গেলে একটি পাত্রে তুলে রাখুন।
     
    ধাপ ৪
     
    এরপর শুক্তোবানানোর (Shukto Recipe) আসল ধাপে প্রবেশ করলাম। এবার কড়াইতে একটু তেল দিয়ে দিন। যদি সবজি ভাজা তেল থেকে যায়তাহলে আলাদা ভাবে তেল দেওয়ার প্রয়োজন নেই। এবার গরম তেলে তেজপাতা ও পাঁচফোড়ন যোগ করুন।তেল থেকে পাঁচফোড়নের হালকা গন্ধ বের হলে তাতে আগে থেকে বেটে রাখা আদা দিয়ে আরো একমিনিট ভেজে নিন।
    এরপর কড়াইতে সরিষা বাটা দিয়ে ভেজে নিন। বলে রাখি, যদি এই মুহূর্তেমশালা কড়াইতে লেগে যায় তাহলে একটু জল দিতে পারেন। কিংবা ওই সেদ্ধ সবজি থেকে ছেঁকে রাখাজলও এই জায়গায় ব্যাবহার করতে পারেন। এরপর যতক্ষন না মশলা থেকে তেল ছাড়ছে ততক্ষণ ভালোকরে নাড়তে থাকুন।
     
    ধাপ ৫
     
    এরপরকড়াইতে আগে থেকে সেদ্ধ করে রাখা আলু যোগ করুন এবং ৩ মিনিট লো ফ্লেমে রান্না করে নিন।তারপর  ভাজা কাঁচাকলা, বরি সহ বাকি সেদ্ধ সবজি কড়াইতে দিয়েদিন। তারপর এতে স্বাদ অনুসারে লবন ও অল্প চিনি ছড়িয়ে দিন।
    সব কিছু ভালো করে মিশিয়েনিন। এরপর কড়াইয়ের মধ্যে নারকেল কুড়ো মিশিয়ে দিয়ে, হালকা করে নেড়ে দিন। এরপর ছেঁকেরাখা অবশিষ্ট জল দিয়ে দিন। এরপর কড়াইতে আগে থেকে ভেজে রাখা বেগুন ও করলা দিয়ে দিন এবংসব সবজি আরো একবার হালকা করে মিশিয়ে নিন।
     
     
    ধাপ ৬
     
    শুক্তোরান্নার শেষ ধাপে চলে এসেছি। যেখানে কড়াইয়ে দুধ ও অল্প ময়দা দিয়ে বানানো একটি মিশ্রণমিশিয়ে দিতে হবে। এরপর গ্যাসের ফ্লেমে লো করে সবজি সেদ্ধ না হয়ে আসা পর্যন্ত রান্নাকরে যেতে হবে। সবজি সেদ্ধ হয়ে গেলে, তাতে রাঁধুনি হালকা গুঁড়িয়ে ছড়িয়ে দিতে হবে।
    এরপরগ্যাস বন্ধ করে দিয়ে কড়াইতে ঘি ছড়িয়ে দিন এবং একটা থালা দিয়ে ঢেকে রাখুন কিছুক্ষন।এভাবেই প্রস্তুত হয়ে গেল বাঙালিস্টাইলে শুক্তো রান্না (Shukto Recipe In Bengali Style) ১০ মিনিট পর ঢাকনা খুলে সরু চালের ভাতেরসঙ্গে পরিবেশন করুন গরম গরম শুক্তো।

Notes

১) মনে রখাবেন, বেগুনকে খুব কড়া ভাজার দরকার নেই। নয়তো বেগুন গলে যেতে পারে।
২) ঢেকে  রান্না করার সময় খেয়াল রাখতে হবে যাতে রান্না কড়াইতে লেগে না যায়। এর জন্য মাঝে মধ্যে ঢাকনা খুলে সবজি ও মশলা নেড়ে নেবেন।
৩) আপনি চাইলে সবজি সেদ্ধ করার সময় জলে হলুদও দিতে পারেন, এখানে হলুদ ছাড়াই রান্নার রেসিপি দেখানো হয়েছে।
৪) আপনি পুরো গ্রেভি দুধ দিয়েই করতে পারেন। আমরা এখানে ময়দা ব্যাবহার করেছি। শুধু  দুধ ব্যাবহার করলে গ্রেভি অনেকটা ঘন হয়ে যায়।
৫) শুক্তো এমনিতে মিষ্টি খেতে লাগে। তাই চিনি দেওয়ার সময় বুঝে চিনি দেবেন। যাতে অতিরিক্ত মিষ্টি না হয়ে যায়। তাতে আসল শুক্তোর স্বাদ আর পাওয়া যায় না।
Keyword Shukto Recipe

FAQS

শুক্তো কি?

শুক্তো বাঙালির ঐতিহ্যবাহী খাবারের একটি পদ। অন্যভাবে বললে শুক্তো একপ্রকার নিরামিষ স্টু। যা বিভিন্ন সবজি সহযোগে বানানো হয়। এটি খুবই পুষ্টিকর খাদ্য। গরমকালে শুক্তো জাতীয় খাবার বেশি খাওয়া হয়, কেননা শুক্তো পেট ঠান্ডা রাখতে সাহার্য করে।

শুক্তো কি শুধুই নিরামিষ পদ?

শুক্তো  নিরামিষ ভাবেই বেশি জনপ্রিয়। এর উৎপত্তিও হয়েছিল নিরামিষ খাবার হিসাবে। তবে কালের পরিবর্তনে এর ধারাও পরিবর্তন হয়েছে। বর্তমানে শুক্তো আমিষ ও নিরামিষ দুই ভাবেই রান্না করা যায়।

শুক্তো কোন খাবারের সঙ্গে পরিবেশন করা যায়?

শুক্তো প্রধানত গরম গরম ভাতের সঙ্গে খেতেই ভালো লাগে। তবে ভাত ছাড়াও মুড়ি, রুটির সঙ্গেও খাওয়া যায়। তবে ভাতের সঙ্গে খেলেই এর বেশি তৃপ্তি মেলে। এছাড়া শুক্তো শুধুও খাওয়া যায়।

  

Leave a comment

Recipe Rating




Open chat
1
Scan the code
Welcome to FoodiePrice
Hello 👋
Can we help you?